পোস্টগুলি

জানুয়ারী, ২০২১ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

Abanindranath Tagore's House-Santiniketan at Konnagar

ছবি
Abanindranath Tagore's House-Santiniketan at Konnagar-Bagan Bari  Konnagar   শান্তিনিকেতন আমার,শুধু আমার কেনো অনেকেরই খুব পছন্দের জায়গা।তার শান্ত পরিবেশ, সবুজের সমারোহ,পাখির কলকাকলিতে সময় কাটাতে বারবার ছুটে যেতে ইচ্ছা করে।সেই একই ছোঁয়া পেয়েছিলাম অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাগানবাড়ি গিয়ে। হুগলি জেলার কোন্নগরেরর এই বাগান বাড়িতেই ছোটবেলা কেটেছে চিত্রশিল্পী অবন ঠাকুরের।ভিক্টোরিয়ান আদলে তৈরি এই বাগানবাড়িটি ১২ বিঘা ৭ কাটা অর্থাৎ প্রায় ১৩ বিঘা জমি নিয়ে তৈরি।আম, জাম, কাঁঠাল,নারকেল,বকুলের ছায়ায়,পাখির কলকাকলিতে মুখরিত সে পরিবেশ।বাড়িটি তৈরি করেছিলেন অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতা গুনেন্দ্র নাথ ঠাকুর ১৮৭০ সালে।জন্ম জোড়াসাঁকোতে হলেও জন্মের পর বালক অবনীন্দ্রনাথের ছোটবেলা কেটেছে এই বাড়িতেই।গঙ্গা তীরবর্তী এই বাড়ি ভর্তি ছিল তখন ঠাকুর,চাকর,মনোরঞ্জনকারী বহুরূপীর দল,ছিল কুকুর,বাঁদর,ঘোড়া,হরিণের মতো পোষ্যেরা,এমনকি ছিল কাছিমের দলও।এই বাড়ির কাঁঠাল গাছের তলায় তার প্রথম কুড়েঘর আঁকতে শেখা।তার লেখা বিশ্ব ভারতী পাবলিকেশনের ' জোড়াসাঁকোর ধারে ' বইটিতে এই বাড়ির সাথে জড়িত বিভিন্ন সুখস্মৃতির উল

Swami Vivekananda-Cricket Match-Town Club Kolkata-7 Wickets Haul

ছবি
ছবি সংগৃহীত হয়েছে গুগুল থেকে Swami Vivekananda-Cricket Match-Town Club Kolkata-7 Wickets Haul আজ স্বামীজির ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী।আজ বলবো বোলার নরেনের দেশাত্মবোধের কথা। আর এই দেশাত্মবোধ যখন তিনি দেখিয়েছিলেন ইডেন উদ্যানে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে ক্রিকেট খেলে।তাঁর শিকাগো সম্মেলন বা ধর্ম সম্পর্কে মত বা বালক নরেনের নানান কীর্তি সবই আমাদের অল্প বেশি জানা।সে প্রসঙ্গ তাই থাক। Related Posts : Kadambini Ganguly's Untold Story , Freedom Fighter Nanibala Devi , Cricket Ball History ১৭৯২ সালে ব্রিটিশরা স্থাপন করে ক্যালকাটা ক্রিকেট ক্লাব। সাহেবরা তখন নেহাতই টাইমপাস হিসাবে খেলছিলেন ক্রিকেট।উনিশ শতকের দ্বিতীয় ভাগে ক্রিকেট আসে কলকাতায়।স্থাপিত হয় টাউন ক্লাব ১৮৮৪ সালে।বাঙালিরাও টেক্কা দিতে বানিয়ে ফেললো টাউন ক্লাব।স্থাপন করেন বাঙ্গালী গণিতজ্ঞ সারাদারঞ্জন রায়।যিনি সম্পর্কে উপেন্দ্রকিশোর রা়য়চৌধুরীর দাদা।সারাদারঞ্জন রায়ই বাংলায় প্রথম ক্রিকেটের নিয়ম নিয়ে বই লিখেছিলেন।এই ক্লাব স্থাপনের মূল উদ্দেশ্যই ছিল ব্রিটিশদের প্রতিদ্বন্ধিতায় ফেলা।এই সন্ধিক্ষণেই নরেন চোখে পড়েন স্বাধীনতা সংগ্রামী হেমচন্দ্র ঘোষের।

Metcalfe Hall-I Am Kolkata Museum-Kolkata Heritage Archive

ছবি
Metcalfe Hall-I Am Kolkata Museum-Kolkata Heritage Archive বিবাদীবাগে অবস্থিত এই মেটক্যাফে হল বর্তমানে ' I am Kolkata Museum' . এই হেরিটেজ বিল্ডিংয়ে একই ছাদের তলায় কলকাতার বিভিন্ন আবেগ, ভালো লাগার মুহূর্ত, ব্যাক্তিত্ব, ছবি,সিনেমা সব মিলিয়ে মিশিয়ে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।এক ঝলকে যেন এক মুঠো কলকাতা। Enjoy full video of Metcalfe Hall tour below: ১৯৯২সালে মেট ক্যাফে হলকে সংরক্ষিত স্মারক ঘোষণা  করার হয়।২০১৯ সালের ৮ ই মার্চ থেকে জনসাধারনের জন্য নতুন রূপে উন্মোচন করা হয়। ভারতের গভর্নর জেনারেল চার্লস টি.মেট ক্যাফের স্মৃতির উদ্দেশ্যে বানানো হয় এই সৌধ।এথেন্সের টেম্পল অফ দি উইন্ডের সম্মুখের স্তম্ভের আদলেই তৈরি হয় এই হলটি। যার স্থপতি ছিলেন সি.কে.রবিনসন।হলটি চারিদিকে স্তম্ভ দিয়ে ঘেরা,এই সুউচ্চ হলটি ভারসাম্যের কথা মাথায়  রেখে মোট ৩০টি স্তম্ভ নির্মাণ করা হয় সমদূরত্ব বজায় রেখে চারিদিকে, যার উচ্চতা ৩৬ ফুট।   কলকাতার প্রথম লাইব্রেরী ছিল এটিই।১৯০৩ সালে এই লাইব্রেরীটি ইম্পেরিয়াল লাইব্রেরী হয়।পরে ১৯২৩ সালে এখান থেকে লাইব্রেরী স্থানান্তরিত করা হয় আলিপুর বেলভেডিয়ায়,যা

Jaikrishna Public Library-Heritage Library-Uttarpara

ছবি
Jaikrishna Public Library-Heritage Library-Uttarpara Library ইটালিয়ান স্থাপত্যের অভূতপূর্ব নিদর্শন যাকে দেখে এক ঝলকে রাজবাড়ি বলে মনে করতেই পারেন। আসলে যেটি উত্তরপাড়ায় জয় কৃষ্ণ লাইব্রেরী। উত্তরপাড়া জয়কৃষ্ণ পাবলিক লাইব্রেরী পশ্চিমবঙ্গের একটি জেলা গ্রন্থাগার।এশিয়ার প্রথম পাবলিক  লাইব্রেরী  গুলোর মধ্যে অন্যতম।হুগলী নদীর তীরে ছোট্ট শহর উত্তরপাড়ায় বাবু জয়কৃষ্ণ মুখোপাধ্যায় (১৮০৮-১৮৮৮) এর পৃষ্ঠপোষকতায় এই  লাইব্রেরী  তৈরি হয়েছিল,যা ১৮৫৯ সালে জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।এটিকে জাতীয় হেরিটেজ ঘোষণা করার প্রক্রিয়া চলছে। এক শীতের দুপুরে আমিও হাজির হয়েছিলাম এই  লাইব্রেরী তে। গাড়িতে বালি ব্রিজ পেরিয়ে আমাদের গাড়ি এসে থেমেছিল এই  লাইব্রেরী র লোহার ফটকের সামনে। হুগলি নদীর তীরে গ্র্যান্ড ট্যাংক রোডের পাশে এই বিশাল  লাইব্রেরী র দিকে মুগ্ধ দৃষ্টিতে তাকিয়ে ছিলাম আমি। লম্বা লম্বা থামওয়ালা প্রাসাদোপম বাড়ি, কাঠের বিশাল ঝুলন্ত বারান্দা, ছক কাটা মেঝে, উজ্জ্বল সবুজ খড়খড়িওয়ালা জানলা, কাঠের রাজকীয় আসবাবপত্র এমন এক যুগের স্মৃতি বয়ে আনে, যা হারিয়ে গিয়েছে অনেক অনেক আগে।এশিয়াটিক সোসাইটি, ভারতীয়

Popular Posts

Barrackpore Annapurna Mandir-Rani Rashmoni Ghat

Top 10 Rajbari near Kolkata-Zamindar Houses in Bengal-Heritage Home Stay-Dayout Plan-Weekend Tour

Gobardanga Jamidar Bari-Prasannamoyee Kali Mandir-Gobardanga Kalibari

Garalgacha Jamidar Bari-Garalgacha Babuder Bari-Bonedi Barir Pujo